একঘেয়ে দইয়ের কাপে নতুন স্বাদের ট্যুইস্ট

ওজন কমাতে চাইলে একটি কার্যকর খাবার হল প্রোবায়োটিক দই। স্ন্যাকস হিসাবে দই খেলে পেটটাও ভরে কিন্তু খাবারটাও স্বাস্থ্যকর হয়।

एनडीटीवी फूड डेस्क  |  Updated: May 25, 2019 13:42 IST

Reddit
5 Nutritious Toppings, Which Are Weight-Loss-Friendly For Probiotic Dahi

প্রোবায়োটিক দই নিয়মিত খাওয়া যায়

Highlights
  • ওজন কমাতে চাইলে দইয়ের কোনও জুড়ি নেই
  • দইয়ে প্রচুর প্রোটিন ও ক্যালশিয়াম থাকলেও ক্যালোরি নেই বললেই চলে
  • বেরিজাতীয় খাবার, নারকেল, গ্র্যানোলা টপিং হিসাবে ব্যবহার করা যায়

আপনার প্রিয় সেলেব্রিটি যে ডায়েটের কথাই বলুন না কেন, তা অনুসরণ করে যদি উল্টে আপনি অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং আপনার শরীরের প্রয়োজনীয় উপাদানের ভারসাম্যে গণ্ডগোল দেখা যায় তা হলে তা এড়িয়ে চলাই ভালো। ওজন কমানো একটি দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা। নিয়মিত শারিরীত কসরত, জাঙ্ক ফুড এড়িয়ে চলা, সুস্থ ভাবে জীবন কাটানো এগুলো নিশ্চিত করবে আপনার ভালো থাকা। ওজন কমাতে চাইলে একটি কার্যকর খাবার হল প্রোবায়োটিক দই। স্ন্যাকস হিসাবে দই খেলে পেটটাও ভরে কিন্তু খাবারটাও স্বাস্থ্যকর হয়।

পরোটা থেকে ইয়াম্মি পিতজা! খুদে খাবে চেটেপুটে…

ওজন কমাতে চাইলে আপনাকে এমন স্ন্যাকস বেছে নিতে হবে যা পেট ভর্তি রাখবে কিন্তু স্বাস্থ্যকরও হবে। দইয়ে খুব কম ক্যালোরি থাকে। বরং এতে ভালো ব্যাকটেরিয়া, প্রোটিন বেশি্ পরিমাণে থাকে। তবে রোজ রোজ শুধু শুধু দই খেতে কারই বা ভালো লাগে? তাই বোরিং দইয়ের কাপকে আকর্ষণীয় করে তুলতে রইলো কিছু টিপস।

দইয়ে মেশানোর জন্য টপিংয়ের সন্ধান:

১. বেরি

অ্যান্টি অক্সিডেন্টে পূর্ণ এবং কম ক্যালোরিযুক্ত বেরিজাতীয় ফল খুবই উপকারী। ত্বক ও শরীরকে ভালো রাখতে এর জুড়ি নেই। স্ট্রবেরি, ব্লুবেরি, র‍্যাপসবেরি, মালবেরি যেটা পছন্দ সেটাই বেছে নিন।

২. গ্র্যানোলা

বাড়িতে তৈরি করা গ্র্যানোলাতে থাকে প্রচুর ফাইবার ও অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। সাধারণত ওটস, শুকনো বেরিজাতীয় ফল, বাদাম দিয়ে এই গ্র্যানোলা বার তৈরি করা হয়। এটি আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম, ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডের উত্তর উৎস।

tf1gk1ho

৩. আনাজ

পছন্দের যে কোনও সিদ্ধ করা সব্জির সঙ্গে অল্প লবণ, গোলমরিচ ও ভাজা জিরের গুঁড়ো মিশিয়ে নিন। আপনার সব্জির রায়তা তৈরি।

৪. ফলের টুকরো

তরমুজ, আম, কিউয়ি, কমলালেবু, বেদানার মতো আপনার প্রিয় ফলগুলিকে বেটে দইয়ের সঙ্গে মিশিয়ে খান। এ ভাবে শরীরে ভিটামিন সি-এর ঘাটতি কমানো যায়। স্বাদ স্বাস্থ্য উভয়ই বজায় থাকবে।

৫. কুচনো নারকেল

সামান্য কুচনো নারকেল, খেজুর ও বাদাম মিশিয়ে এক বাটি দই খেলে তার উপকারিতা অকল্পনীয়।



1at2sppo

এ ছাড়াও কিশমিশ, ডার্ক চকোলেট, যে কোনও বীজ জাতীয় খাবার মিশিয়েও দই খেতে পারেন। তবে খেয়াল রাখবেন তা যেন স্বাস্থ্যকর হয়।

Comments

খাদ্য সংক্রান্ত সাম্প্রতিক খবর, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত টিপস, রেসিপি জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

Advertisement
Advertisement