জেনে নিন, পেঁপে বীজের পাঁচ গুণ

एनडीटीवी  |  Updated: June 07, 2019 22:49 IST

Reddit
5 Surprising Benefits Of Eating Papaya Seeds

পেঁপে খেলে পেটে সয়

Highlights
  • পেঁপের বীজ সহজপাচ্য তাই পরিমিত পরিমাণে খাওয়া যেতেই পারে
  • অনেক সমস্যার এক সমাধান পেঁপে বীজ
  • পেঁপের বীজ শুকিয়ে গুঁড়ো করেও খাওয়া যায়

জানেন তো, পেঁপে খেলে পেটে সয়!  শুধু পেঁপে নয়, পেঁপের বীজও অনেক পুষ্টিগুণে ভরা।  অন্যআন্য ফলের মতোই পেঁপের (papaya) খোসা ছাড়ালেই মিষ্টির শাঁসের সঙ্গে বীজ বেরিয়ে আসে। কিন্তু সেগুলো ভীষণ তেতো। তাই অনেকেই পেঁপের বীজ খেতে চান না। কিন্তু পুষ্টিবিজ্ঞান বলছে, বীজ খেলে আখেরে লাভ আপনারই।

বেঙ্গালুরুর পুষ্টিবিজ্ঞানী ডা. অঞ্জু সুদ (Dr. Anju Sood) জানিয়েছেন, "সব বীজই কিন্তু বিষাক্ত নয়। কিছু কিছু ফলের বীজ তেতো কারণ, সেগুলি খেলে পেটের কিছু সমস্যা হতে পারে। তবে পেঁপে বীজ খুব সহজে হজম হয়। এবং এর মধ্যে অনেক গুণ আছে।." 

(পড়ুন: 5 Untold Benefits Of Orange Seeds)

j7urh1m8

পেঁপে বীজ সহজপাচ্য হওয়ায় পরিমিত পরিমাণে নিয়মিত খেতেই পারেন



কেন পেঁপে বীজ উপকারী?

১. ফ্রি র্যাজিক্যালস কমায়

পেঁপের বীজ মানেই প্রচুর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট (antioxidants)  পলিফেনলস (polyphenols) আর ফ্ল্যাভোনয়েডস(flavonoids) -এর সমাহার। এগুলো আমাদের সাধারণ সংক্রমণ যেমন কাশি-সর্দি মতো

২. ওজন ঝরায়

ফলের বীজে (seeds of the fruit) ফাইবার থাকায় হজম এবং পেট পরিষ্কার হয় ঝটপট। এতে ওজন বাড়ার সম্ভাবনা থাকে না। একই সঙ্গে এটি ব্লাড প্রেসারও নিয়ন্ত্রণ করে।

৩. অন্ত্র ভালো রাখে

বীজের মধ্যে থাকা প্রোটিওলাইটিক (proteolytic) এনজাইম ক্ষতিকারক জীবাণুদের মেরে অন্ত্রকে ভালো রাখে।


৪. ঋতুস্রাবের ব্যথা কমায়

নিয়মিত এই ফলের বীজ খেলে ঋতুস্রাবের যন্ত্রণা এড়ানো যায়।


৫. নিয়ন্ত্রণে থাকে কোলেস্টেরল

পেঁপের বীজে প্রচুর ফ্যাটি অ্যাসিড (fatty acids), বিশেষ করে ওলেইক অ্যাসিড ৩ (oleic acid (3),) থাকে। যা নিয়ন্ত্রণে রাখে কোলেস্টেরল। 

(পড়ুন: Are Fruit Seeds Safe To Eat?)

কীভাবে খাবেন?

ভাবছেন এতো তেতো স্বাদের বীজ খাবেন কী করে? নো চিন্তা। ভালো করে গুঁড়িয়ে পেঁপে বীজ (papaya seeds) স্মুদি, ফলের রস, সরবত বা চায়ের সঙ্গে মিশিয়ে নিন। এছাড়া, চিনি, মধু বা গুড় (jaggery) মিশিয়েও খেতে পারেন।


সতর্কীকরণ: এই নিবন্ধের জন্য এনডিটিভি কোনও ভাবে দায়ী নয়। ওপরে বলা পদ্ধতি গ্রহণের আগে চিকিতসক বা পুষ্টি বিশেষজ্ঞের সঙ্গে পরামর্শ করে নেওয়াই বাঞ্ছনীয়।

Comments

খাদ্য সংক্রান্ত সাম্প্রতিক খবর, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত টিপস, রেসিপি জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

Advertisement
Advertisement