হলদিরামের খাবারে মরা টিকটিকি! তিন দিন বন্ধের পর ফের খুলল এই রেস্তোরাঁ

ছবিতে দেখা যাচ্ছে, হলদিরামের (Haldiram) একটি রেস্তোরাঁয় একটি সাম্বরের বাটিতে মরা টিকটিকি পড়ে রয়েছে।

एनडीटीवी फूड डेस्क (with inputs from IANS)  |  Updated: May 18, 2019 15:50 IST

Reddit
Dead Lizard Found In Its Food, Haldiram Allowed To Reopen Outlet after Three Days

ভালো ও স্বাস্থ্যকর খাবার পরিবেশনের জন্য বেশ সুখ্যাতিই রয়েছে হলদিরামের (Haldiram)। কিন্তু সম্প্রতি সেই বিখ্যাত দোকানের খাবারেই মরা টিকটিকি পাওয়া নিয়ে জনগণের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। নিয়ন্ত্রক কর্তৃপক্ষ দোকান তিন দিন বন্ধ রাখার পরে, ফের অবশ্য হলদিরমকে বিক্রিবাটা শুরু করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে। এই ঘটনায় বিপুলসংখ্যক মানুষের মধ্যে বিক্ষোভ দেখা যায়। যার ফলে নাগপুরে হলদিরামের প্ল্যানেট ফুড (Haldiram's Planet Food) রেস্তোরাঁয় এফডিএ তল্লাশি চালায়। খাদ্য ও ড্রাগ প্রশাসনের (Food and Drugs Administration) নাগপুরের সহকারী কমিশনার মিলিন্দ দেশপান্ডে আইএএনএসকে বলেন, তাঁরা এফডিএর (FDA) নিয়ম-শৃঙ্খলার চার নম্বর ধারায় বর্ণিত নিরাপদ খাদ্য অনুশীলনের নিয়ম লঙ্ঘন করার বিভিন্ন ত্রুটি এবং উদাহরণ মিলেছে এই রেস্তোরাঁয়। তিনি বলেন যে, একটি জানালা জাল না লাগানো অবস্থাতেই খোলা ছিল, যার ফলে পোকামাকড় বা সরীসৃপ প্রবেশ করতে পারত। পাশাপাশি, পরিদর্শন করে দেখা গিয়েছে ছাদের একটি অংশে নির্মাণ অসম্পূর্ণ। সেখান থেকেই টিকটিকি খাবারে পড়ে গিয়েছে বলে তাঁদের ধারণা। 

‘পুরনো ভাত স্বাদে বাড়ে', বাসি ভাত দিয়েই তৈরি করে ফেলুন পাঁচটি মুখরোচক পদ









ছবিতে দেখা যাচ্ছে, হলদিরামের (Haldiram) একটি রেস্তোরাঁয় একটি সাম্বরের বাটিতে মরা টিকটিকি পড়ে রয়েছে। ছবিগুলি ফেসবুক, টুইটারে প্রচুর প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করেছে। ওয়ার্ধার যশ অগ্নিহোত্রী ও নেহা অগ্নিহোত্রী তাঁদের খাবারে মরা টিকটিকি খুঁজে পান। ওই বিষাক্ত খাবার মুখে দেওয়ার পরেই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল তাঁদের। হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টার পর্যবেক্ষণে ছিলেন তাঁরা। যদিও পরে হলদিরামের বিরুদ্ধে এই দম্পতি অভিযোগ দায়ের করতে অস্বীকার করেন। এফডিএ অনুযায়ী, অভিযোগ না জানানোয় এই ঘটনা সামনে আসায় ওই রেস্তোরাঁর বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণে বিরত থাকেন তাঁরা। 

ঘুমের পরিমাণ নয়, ভালো করুন ঘুমের গুণগত মান

মিলিন্দ দেশপান্ডে বলেন, “এই ঘটনার পরে আমরা ওই রেস্তোরাঁয় রেইড করি, এবং দেখা যায় অনেক নিয়ম কানুনই মানছে না ওই রেস্তোরাঁ। তাই আমরা এটি সিল করে দিই। বুধবার তারা সব নিয়ম মেনে চলছে এবং পরিদর্শন শেষে আমরা দোকান বন্ধ করার নোটিশ প্রত্যাহার করেছি।”

দীর্ঘকাল ধরে উত্তর ভারতে যুক্তিসঙ্গত দামে ভালো খাবারের জন্য সুনাম অর্জন করেছে হলদিরাম। শীঘ্রই নাগপুরে আবারও অজনি রেস্তোরাঁর দরজা খুলবে বলেই আশা করা হচ্ছে।

Comments

খাদ্য সংক্রান্ত সাম্প্রতিক খবর, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত টিপস, রেসিপি জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

Advertisement
Advertisement