নির্ধারণের ২০ বছর আগেই ধরা পড়তে পারে ডায়াবেটিস: তাকে নিয়ন্ত্রণে রাখুন এই ছ’টি খাবারে

ডায়াবেটিস রোগ ধরা পড়ার অন্তত ১০ বছর আগে প্রি-ডায়াবেটিস পরিস্থিতি হিসাবে চিহ্নিত করা যায়।

एनडीटीवी फूड डेस्क (with inputs from IANS)  |  Updated: October 19, 2018 11:39 IST

Reddit
Diabetes can Be Detected many Years Before Diagnosis: 6 Foods to Keepit In Control

জার্মানির বার্লিনে বার্ষিক সভায় ইউরোপিয়ান অ্যসোসিসেশন ফর দ্য স্টাডি অফ ডায়াবেটিসের একটি নতুন সমীক্ষা অনুযায়ী, টাইপ-টু ডায়াবেটিসের প্রাথমিক লক্ষণ রোগটি ধরা পড়ার ২০ বছর আগেই চিহ্নিত করা যায়। জাপানের আইজওয়া হাসপাতালের এক গবেষণা দেখিয়েছে, বর্ধিত ফাস্টিং গ্লুকোজ, অতিরিক্ত মেদ, এবং ইম্পেয়ার্ড ইনসুলিন সেনসেটিভিটিকে ডায়াবেটিস রোগ ধরা পড়ার অন্তত ১০ বছর আগে প্রি-ডায়াবেটিস পরিস্থিতি হিসাবে চিহ্নিত করা যায়।

প্রধান গবেষক হিরোয়ুকি সাগেসাকা বলেন, ‘‘টাইপ-টু ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের বেশিরভাগই প্রি-ডায়াবেটিক লক্ষণে ভোগেন। তাঁদের ক্ষেত্রে প্রায় ২০ বছর আগেই বলে দেওয়া যায় যে ডায়াবেটিসের সম্ভাবনা রয়েছে।''

পুরো গবেষণাকালে ১০৬৭ নতুন ডায়াবেটিক টাইপ-টু কেসকে চিহ্নিত করা হয়। ১৫৭৭৮ জনের প্রাথমিক রক্ত পরীক্ষার রিপোর্ট প্রথমে স্বাভাবিক এলেও ৪৭৮১ জনের পরে প্রি-ডায়াবেটিক লক্ষণ দেখা যায়। তাদের ক্ষেত্রে রোগ ধরা পড়ার ১০ বছর আগে লক্ষণ প্রকাশ পেয়েছিল। গবেষণা অনুযায় প্রাপ্তবয়স্কদের মধ্যে ৪২৫ মিলিয়ন (২০-৭৯ বছর) ডায়াবেটিসে আক্রান্ত ছিলেন ২০১৭ সালে। আশঙ্কা ২০৪৫ পর্যন্ত তা গিয়ে ৬২৯-এ পৌঁছবে।

diabetes

টাাইপ টু ডায়াবেটিস: পরিকল্পিত ভাবে খান  যাতে শর্করা নিয়ন্ত্রণে থাকে

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে রাখতে খান এই ৬টি খাবার:

  1. বিটরুট

বিটরুটে কার্বোহাইড্রেট কম, ভিটামিন, খনিজ, তন্তু ও ফাইটোনিউট্রিয়েন্টস বেশি। এর ন্যাচারাল সুগার শকর্রায় পরিণত হয় না। ফলে শরীর তা দ্রুত আত্মীকরণ করে।

  1.  টমেটো

এটি রক্তচাপ কমিয়ে ডায়াবেটিস সংক্রান্ত জটিলতাকে দূরে রাখে। টমেটোতে প্রচুর ভিটামিন সি, ভিটামিন এ এবং পটাসিয়াম রয়েছে। এগুলি লো কার্ব এবং কম ক্যালোরির।

  1. কুমরো বীজ

এগুলি আয়রনে পূর্ণ, ফ্যাটের ধরন বোঝে এবং খিদে কমায়। স্ন্যকস হিসাবে অতি উপাদেয়।

  1. ফ্ল্যাক্সসীড

এতে প্রচুর লিগন্যান নামে প্রচুর তন্তু থাকে। ফলে হৃদরোগ সংক্রান্ত ঝুঁকি কমে। হাড়ের জোড়া মজবুত করে, রক্তে সুগারের মাত্রা কমায় এবং ইনসুলিন সংবেদনশীলতা নিয়ন্ত্রণ করে।

  1. মিক্স নাটস

আমরা জানি বাদামজাতীয় খাবার সুপারফুড আর ওমেগা-থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডে পূর্ণ। এতে প্রচুর এসেন্সিয়াল অয়েল থাকায় ডায়াবেটিক ইনফ্লামেশন, ব্লাড সুগার, এবং খারাপ কোলেস্টেরলকে নিয়্ন্ত্রণ করে।

  1. গোটা দানাশষ্য

বাদামী চাল, বুলগার, ওটসের মতো গোটা দানাশষ্য সহজপাচ্য হওয়ায় রক্তে শর্করাকে নিয়ন্ত্রিত রাখে। ফলে ওজন বৃদ্ধিও কম হয়। যা ডায়াবেটিসের অন্যতম কারণ।

Comments

খাদ্য সংক্রান্ত সাম্প্রতিক খবর, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত টিপস, রেসিপি জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

Advertisement
Advertisement