Durga Puja Special 2019: পুজোর চারদিন 'উমার হেঁশেল'-এ ঢুঁ দিন, মিলবে বাঙালি খানা খাজানা

পালা-পাব্বণী তো আছেই, সারা বছরই কাঁসার থালা, কাঁসার বাটিতে খাবার পরিবেশন করে, কাঁসার গ্লাসে জল দিয়ে একশো শতাংশ বাঙালিয়ানা বজায় রেখে খাবার পরিবেশন করে এই সংস্থা।

एनडीटीवी  |  Updated: September 24, 2019 09:52 IST

Reddit
Durga Puja 2019: Bengal Ghara Puja Special Food List And What Special Will You Get?

ষোলআনা বাহালিয়ানা বেঙ্গল ঘরানায় (সৌজন্যে সংস্থা)

বাঙালি আজন্ম খাদ্য রসিক। বছরভর পঞ্চ ব্যঞ্জনে খেয়ে অভ্যস্থ। যদিও নেট যুগের জেট গতির সঙ্গে তাল মেলাতে গিয়ে খাদ্য বিলাসিতায় কিছুটা হলেও টান পড়েছে। রসিয়ে রাঁধাবাড়ার সময় যেমন একুশের বাঙালির নেই তেমনি স্বাস্থ্য সচেতন হওয়ায় অনেক কিছুই ছেঁটেকেটে সরে গেছে রসনাতৃপ্তির তালিকা থেকে। কিন্তু উৎসব এলেই বাঙালি ভোল বদলে ফের আগের মতোই। শুক্তো থেকে লাবড়া হয়ে, মোগলাই, কন্টনেন্টাল, দেশি-বিদেশি কোনও খাবারেই অরুচি নেই তার। তবে যাঁরা পুজোর ক-দিন বিশুদ্ধ বাঙালি রান্না খেতেই ভালোবাসেন তাঁদের কথা ভেবে তৈরি বেঙ্গল ঘরানা (Bengal Ghara)। পালা-পাব্বণী তো আছেই, সারা বছরই কাঁসার থালা, কাঁসার বাটিতে খাবার পরিবেশন করে, কাঁসার গ্লাসে জল দিয়ে একশো শতাংশ বাঙালিয়ানা বজায় রেখে খাবার পরিবেশন করে এই সংস্থা। বাঙালির সেরা উৎসবেও নিশ্চয়ই এদের স্পেশ্যাল কিছু আয়োজন রয়েছে (Puja Special Food)! চলুন জেনে নেওয়া যাক সারা বছর কী থাকে আর পুজোয় কী পদ খাওয়াবে বেঙ্গল ঘরানা---

Durga Puja 2019: স্বাদে-আহ্লাদে, পুজোর মেজাজে

বাঙালির বাঙালিয়ানা বজায় রাখতে একশ বছরের পুরনো বাড়িতে এক পরিবার মিলে রাঁধছে নানা সব হারিয়ে যাওয়া রান্না। এই উদ্যোগের নাম বেঙ্গল ঘরানা। যেখানে পাত ভরতি বাটা থেকে চচ্চড়ি। কোর্মা থেকে কালো মাংস। 'আমাদের বাজার হয় বুকিং-এর দিন। তাই ফ্রিজের ফ্লেভার এখানে পাওয়া যাবে না। মাংসর রেসিপি অনুযায়ী আমাদের দোকান ঠিক করা থাকে। মানে ঝোল হলে অন্যরকম মাংসের টুকরো। কষা হলে রেওয়াজির অংশ' জানালেন বেঙ্গল ঘরানার কর্ণধার স্বপ্না বন্দ্যোপাধ্যায়। প্যাকেটের মশলার তো প্রশ্নই নেই। এড়িয়ে চলা হয় শুকনো লঙ্কাও। বাঙালির আদি রান্নার মরিচের ঝাল এই পাতে পাওয়া যাবে।

পুরবন্দী কাঁকরোল বা পাঁপড়ের টক মিঠা বা নিভু আঁচের মজে যাওয়া মাছ? এর সব কিছুই পেতে পারেন বেঙ্গল ঘরানায়। পুজো স্পেশ্যাল এবারের 'উমার হেঁশেল'-এ।

Durga Puja 2019: ৯০-এ নটআউট আমিনিয়া বিরিয়ানি, কাবাব, ফিরনিতে (পর্ব ১)

'পুজোর ভিড়ে লাইন দিয়ে খাওয়ার ঝামেলা নেই। আর বেঙ্গল ঘরানায় আমরা পরিবারের সকলে রান্না করি। তাই বাড়িতে বসেই ঝামেলা বাদ দিয়ে বাড়ির রান্না খাওয়ার জায়গা আমরা তৈরি করে রাখি। পঞ্চাশ জনের পর বুকিং বন্ধ 'এর বেশি লোক হলে রান্নার হাত নষ্ট হয়ে যায় বদলে যায় স্বাদ' বিশদে স্বপ্না।

6qpc1o9g



শুধু মেনু নয়। বাঙালি খাওয়ার সনাতন পদ্ধতিকে এই পুজোর মধ্যেও ধরে রেখেছে বেঙ্গল ঘরানা। সোনা রঙের কাঁসার থালায় যখন বড়-মার রসালো পাঁঠা বা হলদে চুনোর বাটি চচ্চড়ি পড়ে তখন তার জৌলুস ফিরে নিয়ে সে কালের বাঙালিয়ানায়। তাই 'কুটনো কাটাও একটা বিশেষ ব্যাপার। ছক্কার কুমড়ো লুডোর ছক্কার মতো না হলে সেই স্বাদই আসবেনা। এ বারের পুজোয় 'ডিমের কোমল গান্ধার' এ পেঁয়াজ যেমন যেমন তেমন করে কাটলে চলবে না' জানালেন সুমিত্রা মন্ডল। বেঙ্গল ঘরানার অন্যতম শেফ। বাঙালি রান্না খাওয়াবেন বলে এনজিওর চাকরি ছেড়েছেন যিনি।

Durga Puja 2019: আহারে ম্যানিয়া? দিল খুশ আমিনিও মাটন কারি, কাবাব, ফিরনিতে (২য় পর্ব)

বাঙালি কবেই বা তার রান্নার উদযাপন করেছে? অথচ ঋতু বদল থেকে উৎসব--- বাঙালির জীবনের সব কিছুকে বোঝা যায় রান্না দিয়ে। বেঙ্গল ঘরানাও চেষ্টা করেছে 'পিঠোপিঠি' ( পিঠে উৎসব), বসন্ত উৎসব, বর্ষামঙ্গল, আগমনী-র মতো উৎসবে গান, কবিতা কখনো নাটক বা নাচের মাধ্যমে সংস্কৃতির আঙিনায় বাংলার খাদ্যগুণকে তুলে ধরতে। আর ভবিষ্যতকে সুন্দর করতে অতীতকে চিনে নিতে হয়। সেই জন্যেই খাদ্যাভাস যে একটি জাতীর সংস্কৃতির দর্পণ- বেঙ্গল ঘরানা এ  বারের পুজো ভোজে সে কথাই বলতে চায়।

Comments

খাদ্য সংক্রান্ত সাম্প্রতিক খবর, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত টিপস, রেসিপি জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

Advertisement
Advertisement