টাইপ টু ডায়াবেটিসের সম্ভাবনা কমাতে চান, ডায়েটে রাখুন ভিটামিন ডি

গবেষকরা পরীক্ষা করে দেখেছেন ভিটামিন সাপ্লিমেন্ট এর সঙ্গে শরীরে শর্করার মাত্রার একটি সম্পর্ক রয়েছে।

Deeksha Sarin (with inputs from IANS)  |  Updated: January 31, 2019 13:56 IST

Reddit
Vitamin D May Lower Risk Of Type Two Diabetes

দ্য নর্থ আমেরিকান মেনোপজ সোসাইটির একটি জার্নালে সম্প্রতি একটি সমীক্ষা প্রকাশিত হয়েছে। সেখানে দেখা গিয়েছে নিয়মিত ভিটামিন ডি গ্রহণ করলে ইনসুলিন সংবেদনশীলতা ভালো হয় এবং টাইপ টু ডায়াবেটিসের সম্ভাবনা অনেকটাই কমে যায়। ভিটামিন ডি আমাদের শরীরের সঠিক কার্যকারিতার জন্য অত্যন্ত জরুরী একটি উপাদান। এটি হাড়ের স্বাস্থ্য ভালো রাখতেও সাহায্য করে।

সোনায় মোড়া আইসক্রিম! ভারতে এই আইসক্রিম খেতে কত টাকা খসাতে হবে জেনে নিন

গবেষণাটি করা হয়েছিল ৩৫ থেকে ৭৪ বছরের ৬৮০ জন মহিলার উপরে। রিপোর্টে দেখা গিয়েছে তাদের মধ্যে ২৪ জন নিয়মিত ভিটামিন ডি সাপ্লিমেন্ট নিতেন।

গবেষকরা পরীক্ষা করে দেখেছেন ভিটামিন সাপ্লিমেন্ট এর সঙ্গে শরীরে শর্করার মাত্রার একটি সম্পর্ক রয়েছে। তবে দিনের বেশ খানিকটা সময় সূর্যের আলোয় যদি থাকা যায় তাতেও শরীরে ভিটামিন ডি এর পরিমাণ বাড়ে এবং রক্তে শর্করার পরিমাণে হেরফের হয়।

ওজন কমান মুখরোচক স্ন্যাকস খেয়ে

নর্থ আমেরিকান মেনোপজ সোসাইটি এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর জুয়ান পিঙ্কারটন বলেন ভিটামিন ডি এর মাত্রা শরীরে অত্যধিক কমে গেলে টাইপ টু ডায়াবেটিসের সম্ভাবনা খুবই বেড়ে যায়। তবে নিয়মিত ভিটামিন সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করলে রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে থাকবে তবে এ নিয়ে এখনও আরও গবেষণার প্রয়োজন রয়েছে।

কোন খাবার শরীরে ভিটামিন ডি এর ভারসাম্য সঠিক বজায় রাখতে পারে:

দুধ

দুধে নানা পুষ্টিগুণ থাকায় এ কে সুষম খাদ্য হিসেবে বিবেচনা করা হয়। দুধের মধ্যে ভিটামিন ডি প্রচুর পরিমাণে থাকে। প্রতিদিন প্রাতঃরাশে এক গ্লাস গরম দুধ আপনাকে শরীরের প্রয়োজনীয় কুড়ি শতাংশ ভিটামিন ডি সরবরাহ করতে পারে।

কমলা লেবুর রস

কমলা লেবুর রসে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ডি থাকে। আপনি সরাসরি কোয়া ছাড়িয়ে অথবা রস তৈরি করে কমলা লেবু নিয়মিত খান যাতে শরীরে ভিটামিনের সঠিক মাত্রা বজায় থাকে।

মাশরুম

ভিটামিন ডি এর একটি অন্যতম উৎস হলো মাশরুম। প্রতিদিনের খাবারে স্যালাড বা স্যান্ডউইচে অথবা সুপের মধ্যেও মাশরুম দেওয়া যায়। মাশরুম এর মধ্যে ভিটামিন বি, বি ওয়ান, বি টু থাকে।

আপনার প্রতিদিনের ডায়েট এর মধ্যেও এই খাবারগুলি কে রাখুন তাহলে তফাতটা কিছুদিনের মধ্যে নিজেই টের পাবেন।

ডিসক্লেমার: এই লেখায় শুধুমাত্র জেনেরিক তথ্য ব্যবহৃত হয়েছে এটি কোনও চিকিৎসকের সুচিন্তিত মতামত নয়। আপনার যে কোনও প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এই তথ্যের কোন দায় এনডিটিভির নয়।

আরও খবর দেখুন এখানে

Comments

খাদ্য সংক্রান্ত সাম্প্রতিক খবর, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত টিপস, রেসিপি জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

Advertisement
Advertisement