ওজন কমাতে সহায় হবে এক কাপ ব্ল্যাক কফি

ব্ল্যাক কফিতে ক্লোরোজেনিক অ্যাসিড নামে একটি উপাদান রয়েছে, যা ওজন হ্রাসকে ত্বরান্বিত করে। আপনি যদি রাতের খাবার বা ডিনারের পরে ব্ল্যাক কফি ব্যবহার করেন তবে ক্লোরোজেনিক অ্যাসিড শরীরে গ্লুকোজ তৈরি হওয়া কমায়।

   |  Updated: October 08, 2018 16:50 IST

Reddit
Weight Loss: Black Coffee Lose Weight

কয়েক ফোঁটা মধু বা কয়েক ফোঁটা লেবুর রস দিয়ে এক কাপ গরমগরম ব্ল্যাক কফির স্বাদ পরম কফি প্রেমিকই জানেন। কফির নানান স্বাদের মধ্যে অনেকেই ব্ল্যাক কফি খেতে ভীষণ পছন্দ করেন। শুধু এর স্বাদের জন্য নয়, ব্ল্যাক কফির স্বাস্থ্যগুণও বেশ ভালোই। বিশেষ করে ওজন কমাতে এর উল্লেখযোগ্য ভূমিকা আছে।

ইউনাইটেড স্টেটসের এগ্রিকালচার ডিপার্টমেন্টের প্রতিবেদন অনুযায়ী, গ্রাউন্ড বিন থেকে তৈরি করা এক কাপ কালো কফিতে থাকে মাত্র 2 ক্যালোরি। 1 কাপ তরল কালো এসপ্রেসোতে মাত্র 1 ক্যালোরি রয়েছে। ডিক্যাফেইনেটেড বীজ থেকে বানান হলে তাতে আবার একেবারেই ক্যালোরি থাকে না।

coffee for skin care

ওজন কমাতে ব্ল্যাক কফি

ব্ল্যাক কফিতে ক্লোরোজেনিক অ্যাসিড নামে একটি উপাদান রয়েছে, যা ওজন হ্রাসকে ত্বরান্বিত করে। আপনি যদি রাতের খাবার বা ডিনারের পরে ব্ল্যাক কফি ব্যবহার করেন তবে ক্লোরোজেনিক অ্যাসিড শরীরে গ্লুকোজ তৈরি হওয়া কমায়। নতুন ফ্যাট কোষ উত্পাদনও হ্রাস পায়। ব্ল্যাক কফিতে বাদাম দুধ এবং ক্রিম যোগ করতে পারেন। এতে স্বাদই যে শুধু বাড়বে তা নয়, অতিরিক্ত ওজন কমাতে সহায়কও হবে। শুধুমাত্র ক্লোরোজেনিক অ্যাসিডই যে ওজন কমানোর জন্য কালো কফিকে আদর্শ করে তুলেছে তা নয়। ব্ল্যাক কফিতে বিভিন্ন অ্যান্টিঅক্সিডেন্টস আছে যা কার্যকরীভাবে ওজন কমাতে সহায়ক।

Listen to the latest songs, only on JioSaavn.com

ব্ল্যাক কফিতে থাকে ক্যাফিন যা খুব কার্যকরীভাবে বিপাকীয় ক্রিয়াকলাপ বাড়ায় এবং আমাদের শরীরের শক্তি স্তরকে বাড়িয়ে তোলে। ভাল বিপাকীয় কার্যক্রম এবং উচ্চ শক্তি মাত্রা ক্ষিদে কমায়। তবে চিনি বা অন্যান্য মিষ্টি যুক্ত করে একে লো-ক্যালোরি পানীয় বানিয়ে তুলবেন না। আপনার দৈনন্দিন খাদ্য তালিকায় ব্ল্যাক কফি যোগ করুন এবং যারা অতিরিক্ত ওজন কমান। আপনি কফির সাথে গুড়, মধু বা বাদামদুধ যোগ করতে পারেন।

ব্ল্যাক কফি একটি প্রাকৃতিক নিরাময়কারী। শরীরে অত্যধিক জলের কারণেও অনেকের ওজন বেড়ে যায়। ব্ল্যাক কফি ঘনঘন প্রস্রাবের মাধ্যমে অতিরিক্ত জল হ্রাস করতে সাহায্য করে। এই পদ্ধতিটি কোনও পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া ছাড়াই অতিরিক্ত ওজন কমাতে সহায়তা করে। যাইহোক, এই ওজন হ্রাস অবশ্য অস্থায়ী। আপনার ডায়েটে ব্ল্যাক কফি যোগ করার আগে আপনার পুষ্টিবিদ বা ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করা ভাল।

Comments

খাদ্য সংক্রান্ত সাম্প্রতিক খবর, স্বাস্থ্য সংক্রান্ত টিপস, রেসিপি জানতে, লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা ফলো করুন Twitter আর সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

Advertisement
সৌন্দর্য
Advertisement